বিডিবিএলে ঋণ কেলেঙ্কারি, অনুসন্ধানে দুদক

দুদক

ক্রাইম নিউজ সার্ভিস ॥ বাংলাদেশ ডেভেলমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডে (বিডিবিএল) অযোগ্য ব্যক্তি ও ভুঁইফোড় কিছু প্রতিষ্ঠানকে জামানতবিহীন এবং অস্তিত্বহীন জামানত রেখে অর্ধশত কোটি টাকার বেশি ঋণ দেওয়ার অভিযোগ যাচাই করতে তদন্তে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ অভিযোগ প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ড. মো. জিল্লুর রহমানের বিরুদ্ধে। অভিযোগ পেয়ে প্রাথমিক যাচাইবাছাই শেষে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তাঁর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক। সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধানকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। অনুসন্ধানের দায়িত্ব পেয়েই গুলশান আনোয়ার প্রধান বিডিবিএল এবং ঋণসংক্রান্ত যাবতীয় নথি সংগ্রহ করেছেন। অনুসন্ধানের দ্বিতীয় পর্যায়ে তিনি বিডিবিএলের সাবেক…

বিস্তারিত

সাবেক এমডির অপকীর্তিই ডুবিয়েছে বিডিবিএল

ক্রাইম নিউজ সার্ভিস, হাছান আদনানঃ যাচাই-বাছাই না করেই অযোগ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে বড় অংকের ঋণ দেয়া হয়েছে। ঋণের বিপরীতে রাখা হয়নি পর্যাপ্ত জামানত। যাওবা জামানত রাখা হয়েছে, অস্তিত্ব মিলছে না তারও। বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) থেকে এসব ঋণ দিয়েছেন ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ড. মো. জিল্লুর রহমান, যা এখন খেলাপি হয়ে গেছে। সাবেক এমডির এসব অপকীর্তিই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটিকে ডুবিয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। যাত্রার এক মাস পর বিডিবিএলের এমডির দায়িত্ব পান ড. জিল্লুর রহমান। দায়িত্ব নেয়ার সময় ব্যাংকটিতে খেলাপি ঋণ ছিল বিতরণ করা ঋণের ৩১ শতাংশ। চলতি বছরের…

বিস্তারিত