দেশে আনা হলো আমিরাতে গ্রেপ্তার ধর্ষণ ও হত্যার আসামি

ক্রাইম নিউজ সার্ভিস ॥ নারায়ণগঞ্জে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা মামলার আসামিকে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে গ্রেপ্তার করে দেশে আনা হয়েছে।

ইন্টারপোলের মাধ্যমে আটকের পর রোববার তাকে নারায়ণগঞ্জ আনা হয় বলে জানিয়েছেন ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের।

গ্রেপ্তার আবু সাঈদ (২৮) ফতুল্লার পশ্চিম দেওভোগ বড় আমবাগান এলাকার ইকবাল হোসেনের ছেলে।

ওসি মঞ্জুর বলেন, স্কুলছাত্রী মোনালিসা ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামি সাইদ হত্যাকাণ্ডের পর দেশে ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে ইন্টারপোলে তার গ্রেপ্তার আবেদন করা হয়।

“ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে দুবাই পুলিশ চলতি মাসের ১৭ সেপ্টেম্বর সাঈদকে গ্রেপ্তার করে।”

তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে (রিমান্ড) নেওয়া হবে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে আবু সাঈদ বিয়ে করার জন্য দুবাই থেকে বাংলাদেশে আসেন। পরে পাশের বাড়ির ব্যবসায়ী শাহীন বেপারীর ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া মোনালিসাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় সাঈদের পরিবার। মেয়ের বয়স অল্প হওয়ায় প্রস্তাবে রাজি হননি মোনালিসার পরিবার। পরে সাঈদ পাশের এলাকার ইভা নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেন।

অভিযোগে বলা হয়, পরের বছরের ২ ফেব্রুয়ারি পরিবারের লোকজন নরসিংদী বেড়াতে গেলে মোনালিসাকে একা বাড়িতে পেয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করেন সাইদ। পরে ঘটনাটি আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে দিতে মোনালিসার লাশ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়। পুলিশ পশ্চিম দেওভোগ বড় আমবাগানের বাড়ি থেকে মোনালিসার লাশ উদ্ধার করে।

নিহত মোনালিসা হাজী উজির আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিল।

এই সংক্রান্ত আরো নিউজ

Leave a Comment