৩ ঘণ্টায় গুজব চিহ্নিত করে জবাব দেবে সরকার: তারানা

ক্রাইম নিউজ সার্ভিস ॥ সোশাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ানো হলে তিন ঘণ্টার মধ্যে তা শনাক্ত করে সংবাদমাধ্যমে প্রেসনোট আকারে পাঠানোর পরিকল্পনা করছে সরকার।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ইন্টারনেটে ‘অপপ্রচার’ বন্ধে যে ‘গুজব সনাক্তকরণ ও নিরসন কেন্দ্র’ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তারাই এ কাজটি করবে।

ওই কেন্দ্র চলতি মাস থেকেই ২৪ ঘণ্টা কাজ শুরু করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড নিয়ে বুধবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এসব তথ্য দেন তারানা হালিম।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় গুজব ছড়ানোর প্রেক্ষাপটে জাতীয় নির্বাচনের আগে ইন্টারনেটে ‘অপপ্রচার’ বন্ধে এই কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার উদ্যোগের কথা আগের দিন সাংবাদিকদের জানান তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

আর প্রতিমন্ত্রী বলেন, “নির্বাচনের আগে ইদানিং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুজবের কারখানা হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আসক্তি থেকে একটি প্রজন্ম ওইসব গুজবকে সত্য বলে ধরে নেয়, যা আসলে সচেতনতার অভাব। আমরা তথ্য মন্ত্রণালয় নিমকো থেকে লোকবল নিয়ে পিআইডিতে এই টিম করব, তারা ২৪ ঘণ্টা সোশাল মিডিয়া দেখতে থাকবে।”

তারানা আশ্বস্ত করেন, সোশাল মিডিয়ার কণ্ঠরোধ করার জন্য নয়, বরং গুজব চিহ্নিত করাই হবে এ কেন্দ্রের কাজ।

“কোনো গুজব সোশাল মিডিয়ায় আসার তিন ঘণ্টার মধ্যে তা চিহ্নিত করে সকল সরকারি-বেসরকারি টিভি চ্যানেল এবং এফএম রেডিও ও সংবাদ মাধ্যমে তা জানিয়ে দিতে পিআইডি থেকে প্রেসনোট যাবে যে এ সংবাদ ভিত্তিহীন গুজব ও অসত্য। এর মাধ্যমে তথ্যভিত্তিক তথ্য প্রতিষ্ঠিত হবে।”

বিএনপি-জামায়াতের ‘প্রচারণা’ নির্বাচনের আগে বেড়ে যেতে পারে- এমন মন্তব্য করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বিএনপি-জামায়াতের লন্ডনভিত্তিক প্রচারণা সেল আছে এবং তিনশোর বেশি ফেইসবুক পেইজ রয়েছে জামায়াতের এবং তারা অ্যাকটিভ। নির্বাচনের আগে এই প্রবণতাটা বেড়ে যাবে।”

তারানা বলেন, গুজব সনাক্তকরণ ও নিরসন কেন্দ্রে একটি ফোন নম্বর দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। প্রাথমিকভাবে সাতজনের একটি টিম এই কেন্দ্রে কাজ করবে।

নির্বাচনের পরেও এই কেন্দ্র বা সেলের কাজ অব্যাহত থাকা প্রয়োজন বলে মত প্রকাশ করেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী।

দক্ষিণ এশীয় ফুটবল ফেডারেশন (সাফ) চ্যাম্পিয়নশিপ সম্প্রচারের মধ্য দিয়ে ‘কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়াই’ বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের পরীক্ষামূলক বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, বিটিভি সরাসরি তরঙ্গ নিয়ে খেলা সম্প্রচার করেছে।

এর ফলে স্যাটলাইট ভাড়া বাবদ বিটিভির ব্যয় কমে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী।

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে তরঙ্গ বরাদ্দ সাপেক্ষে বেসরকারি টিভিগুলোতে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট সেবা নিতে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “আমরা চাই বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট ব্যবহার হোক এবং দেশের টাকা দেশেই থাকুক।”

Please follow and like us:
0

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...