সুদীপ্ত খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৭ যুবককে খুঁজছে পুলিশ

ক্রাইম নিউজ সার্ভিস্‌ ॥ চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সহসম্পাদক সুদীপ্ত বিশ্বাস খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সাত যুবককে খুঁজছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ওই যুবকদের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। তবে কেউ ধরা পড়েননি। ওই যুবকেরা কারা এবং কোন নেতার অনুসারী, সে বিষয়ে পুলিশ স্পষ্ট করে কিছু বলছে না।

সুদীপ্ত হত্যার ঘটনায় তাঁর বাবা মেঘনাথ বিশ্বাস গত শুক্রবার রাতে চট্টগ্রাম নগরের সদরঘাট থানায় অজ্ঞাতপরিচয় সাত-আটজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এর আগে সকাল সাতটার দিকে নগরের দক্ষিণ নালাপাড়া এলাকার বাসা থেকে ডেকে নিয়ে সুদীপ্তকে রড ও লাঠিসোঁটা দিয়ে পিটিয়ে রাস্তার পাশে অচেতন অবস্থায় ফেলে চলে যায় দুর্বৃত্তরা। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়।

মামলার তদন্তে অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) সালেহ মো. তানভীর বলেন, ‘আমরা সন্দেহভাজন কয়েকজন আসামির বাড়িতে অভিযান চালিয়েছি। সবাই গা ঢাকা দিয়েছে। আমাদের ধারণা, ওরা সুদীপ্তকে খুন করেছে। নইলে পালিয়ে যাবে কেন?’

তদন্ত সঠিক পথে চলছে জানালেও সন্দেহভাজন আসামিদের নাম এবং হত্যার কারণ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি এই পুলিশ কর্মকর্তা। তবে পুলিশের একটি সূত্র বলছে, ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি মন্তব্য নিয়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে। এর ভিত্তিতে তদন্ত এগোচ্ছে।

ছাত্রলীগের এক নেতা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেছিলেন, চট্টগ্রাম নগরের লালখান বাজার এলাকার এক আওয়ামী লীগ নেতার অনুসারীরা সুদীপ্ত হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকতে পারেন। পুলিশ ওই ‘ক্যাডারদের’ বাড়িতে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়েছে। ঘটনার পর তাঁরা গা ঢাকা দেওয়ায় সন্দেহ আরও জোরালো হচ্ছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, হত্যাকাণ্ডে ছয়-সাতজন সরাসরি অংশ নেন। এর বাইরে আরও ৩০-৩৫ জন যুবক নালাপাড়ার (সুদীপ্তের বাসা) অদূরে নিউমার্কেট মোড়, সিটি কলেজ-সংলগ্ন কালীবাড়ি মন্দির মোড়ে তখন অবস্থান করছিলেন। সুদীপ্তকে পিটিয়ে চলে আসার সময় তিনটি ফাঁকা গুলি করে দুর্বৃত্তরা।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের একজন কর্মকর্তা বলেন, ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি মন্তব্য করার জের ধরে সুদীপ্ত খুন হয়েছেন সে বিষয়ে তাঁরা মোটামুটি নিশ্চিত। তিনি বলেন, সন্দেহভাজন আসামিদের মধ্যে একজন একটি খুনের মামলার আসামি। আরেকজন ধর্ষণ মামলার আসামি। আসলে তাঁরা পেশাদার সন্ত্রাসী। কোনো এক ব্যক্তির নির্দেশে ভাড়া খেটেছেন বলে তিনি ধারণা করছেন।

সুদীপ্ত খুনের ঘটনায় জড়িত যুবকদের গ্রেপ্তারের দাবিতে গতকাল শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরের দারুল ফজল মার্কেট চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ছাত্রলীগ। মিছিলটি নগরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...