রিজার্ভ চুরি ।। স্পর্শকাতরতা বিবেচনা করে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়নি

বাংলাদেশ ব্যাংক

ক্রাইম নিউজ সার্ভিসঃ রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনতে সরকার বদ্ধপরিকর বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সোমবার সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

এ সম্পর্কে সরকারি দলের নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় দায়ের করা মামলা বর্তমানে তদন্তাধীন। এ ঘটনার সঙ্গে দেশি-বিদেশি যে–ই জড়িত হন না কেন, তাঁদের সম্ভাব্য সব আইনের আওতায় আনা হবে।

আবদুল মুহিত বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে চুরি যাওয়া টাকার মধ্যে শ্রীলঙ্কায় পাঠানো টাকার প্রায় পুরোটাই (১৯.৯৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে জমা হয়েছে। এ ছাড়া ফিলিপাইনে পাঠানো টাকা ফেরত আনতে যোগাযোগ অব্যাহত আছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা এখন পর্যন্ত ৯ হাজার ৮২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ফিলিপাইনের ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের কাছে জমা করেছে।

এ কে এম শাহজাহান কামালের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিকে ৩০ দিনের মধ্যে প্রাথমিক ও ৭৫ দিনের মধ্যে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেওয়ার অনুরোধ করা হয়। স্পর্শকাতরতা বিবেচনা করে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন এখনো প্রকাশ করা হয়নি। কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর তা বিশ্লেষণ করে সমস্যা মোকাবিলায় সরকার পদক্ষেপ নেবে।

Please follow and like us:
0

Related posts

Leave a Comment