হাত-পা বেঁধে গায়ে আগুন দিয়ে চালককে পুড়িয়ে হত্যা

CNS

ক্রাইম নিউজ সার্ভিসঃ কিশোরগঞ্জে হাত-পা বেঁধে গায়ে আগুন দিয়ে এক অটোরিকশা চালককে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত শামীম (১৮) সদর উপজেলার যশোদল ইউনিয়নের আমআটি শিবপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে। তিনি এলাকায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালাতেন।

স্থানীয় মাদকসেবীদের বাধা দেওয়ায় তাকে এভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে স্বজনদের অভিযোগ।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, “শুক্রবার সকাল পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। তবে আমরা হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আটক করার চেষ্টা করছি।”

নিহতের চাচা আব্দুল করিম জানান, গ্রামের কয়েকজন বখাটে যুবক শামীমদের বাড়ির কাছে নিন্দু মিয়ার মাছের খামারে বসে নিয়মিত নেশা করত।  এতে বাধা দেওয়ায় বেশ কয়েকবার শামীমের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়।

বুধবার তাদের কয়েকজনের সঙ্গে শামীমের হাতাহাতিও হয়। এরপর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শামীম ইজি বাইক চালিয়ে বাড়ি ফেরার সময় স্থানীয় শফিক, জনি, আল আমিন ও আরও একজন বখাটে যুবক তাকে ডেকে ওই খামারে নিয়ে যায় বলে আব্দুল করিম জানান।

“সেখানে তারা চারজন মিলে হাত-পা বেঁধে শামীমের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে চলে যায়। শামীমের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করার আগেই শরীরের বেশিরভাগ অংশ পুড়ে যায়।”

গুরুতর দগ্ধ শামীমকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা।

সেখান থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত ১টার দিকে ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ এলাকায় শামীমের মৃত্যু হয় বলে তার চাচা জুবায়ের আলম জানান।

কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক আহমেদ মিজানুর রহমান জানান, শামীমের শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল।

এই সংক্রান্ত আরো নিউজ

Leave a Comment